অক্টাল সংখ্যা পদ্ধতি (Octal number system) কাকে বলে?

যে সংখ্যা পদ্ধতির ভিত্তি ৮ তাকে অক্টাল সংখ্যা পদ্ধতি (Octal number system) বলে। অক্টাল সংখ্যা পদ্ধতিতে অঙ্ক ৮টি। যথাঃ ১, ২, ৩, ৪, ৫, ৬, ৭। এখানে সবচেয়ে বড় অঙ্ক ৭। এর চেয়ে বড় সংখ্যা গঠন করতে হলে দুই বা ততোধিক অঙ্কের বিন্যাস করতে হয়। ৭ এর পরের সংখ্যা ১০, যার দশমিক মান ৮ এবং এর পরেরটি ১১, যার দশমিক মান হচ্ছে ৯। অক্টাল সংখ্যা পদ্ধতি সাধারণ মানুষের কাছে পরিচিত নয়। The Art of Computer Programming বইয়ের লেখক Donald Kuth তার বইয়ে উল্লেখ করেন যে সুইডেনের রাজা ৭ম চার্লস (King Charls XII) অক্টাল সংখ্যা পদ্ধতি উদ্ভাবন করেন। দশমিক সংখ্যার কাছাকাছি বিধায় কম্পিউটার সিস্টেমে মাঝে মাঝে অক্টাল সংখ্যা ব্যবহার করা হয়। যেমন UNIX সিস্টেমে অক্টাল সংখ্যা ব্যবহার করা হয়। তবে অসুবিধে হচ্ছে এক বাইটকে প্রকাশ করার জন্য অক্টাল সিস্টেমে ৩টি অক্টাল সংখ্যা প্রয়ােজন। কিন্তু হেক্সাডেসিমাল সংখ্যা পদ্ধতিতে প্রয়োজন হয় ২টি সংখ্যার। তবে ডিজিটাল সিস্টেমের বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাইনারি সংখ্যাকে অক্টাল সংখ্যা দ্বারা উপস্থাপন করা হয়।

 

অক্টালের বাইনারি সংখ্যা পদ্ধতির বৈশিষ্ট্য:

১. অক্টালের বাইনারি নাম্বার সিস্টেমের বেস বা ভিত্তি হচ্ছে 8।

২. এ পদ্ধতিতে 0 থেকে 7 পর্যন্ত মােট 8টি মৌলিক অঙ্ক আছে।

৩. দশমিক সংখ্যার পাশাপাশি বিধায় কম্পিউটার সিস্টেমে মাঝে মাঝে অক্টাল সংখ্যা ব্যবহার করা হয়।

 

দশমিক সংখ্যা থেকে অক্টাল সংখ্যায় রূপান্তর

ক্রমাগত দশমিক সংখ্যাকে ৮ দিয়ে ভাগ করে যেতে থাকলে যে ভাগশেষ হয়, সেগুলিকে উলটে লিখলেই তুল্য অক্টাল সংখ্যা পাওয়া যায়।

Leave a Comment