ক্যাপাসিটর কি? ক্যাপাসিটর কিভাবে কাজ করে?

ক্যাপাসিটর (Capacitor) একটি ইংরেজি শব্দ, যার বাংলা অর্থ হচ্ছে ধারক। নাম থেকে বুঝা যাচ্ছে এটা কোনো কিছুকে ধরে রাখে। ক্যাপাসিটর মূলত ইলেকট্রিক চার্জকে ধরে রাখে, অনেকটা ব্যাটারির মতো। কিন্তু ব্যাটারি (Battery) প্রচুর পরিমাণ চার্জকে ধরে রাখে এবং ধীরে ধীরে চার্জ হয় আর ধীরে ধীরে ডিসচার্জ হয়। সেই তুলনায় ক্যাপাসিটর অল্প পরিমাণ চার্জকে ধরে রাখে।

আমরা আজকের টিউটোরিয়ালের মাধ্যমে জানবো ক্যাপাসিটর কি? (What is Capacitor?); ক্যাপাসিটর কিভাবে কাজ করে? (How does a capacitor work?); ক্যাপাসিটর কেন ব্যবহার করা হয়? (Why are capacitor used?); ক্যাপাসিটর কোথায় ব্যবহার করা হয়?; ক্যাপাসিটর কত প্রকার ও কি কি? (How many types of Capacitor?)

তো চলুন প্রথমেই জেনে ক্যাপাসিটর সম্পর্কে।

 

ক্যাপাসিটর কি? (What is Capacitor in Bengali/Bangla?)

ক্যাপাসিটর হলো দুই টার্মিনাল বিশিষ্ট ইলেকট্রনিক ডিভাইস, যা বৈদ্যুতিক চার্জকে ধরে রাখে আবার প্রয়োজন মতো সরবরাহ করে। উপরের চিত্রে যে ডিভাইসগুলো দেখা যাচ্ছে এগুলোই হচ্ছে ক্যাপাসিটর (Capacitor)।

ক্যাপাসিটরের চার্জ ধারণ ক্ষমতা এর আকৃতি, প্রকৃতি এবং ব্যবহৃত ডাই-ইলেকট্রিক মাধ্যমের উপর নির্ভর করে। ক্যাপাসিটরকে সাধারণত ইংরেজি অক্ষর ‘C’ প্রতীক দ্বারা প্রকাশ করা হয়। ইলেকট্রনিক সার্কিটে ক্যাপাসিটর বহুল ব্যবহৃত হয়। খুব সাধারণ গঠন এবং দামেও কম এই উপাদান দিয়ে ইলেকট্রনিক সার্কিটের সুইটিং, বিশুদ্ধ ডিসি তৈরি ইত্যাদি কাজ করা হয়।

 

ক্যাপাসিটরের একক (Unit of Capacitor)

ক্যাপাসিটরের একক হচ্ছে ফ্যারাডে (Farad)।

কোনো ক্যাপাসিটরের বিভব এক একক বাড়ানোর জন্য যদি এক কুলম্ব আধানের প্রয়োজন হয়, তবে এর ক্যাপাসিট্যান্সকে এক ফ্যারাড (Farad) বলে। একে সংক্ষেপে F দ্বারা প্রকাশ করা হয়।

 

ক্যাপাসিটরের প্রকারভেদ (Types of Capacitor)

ক্যাপাসিটর বিভিন্ন ধরনের হয়ে থাকে। যেমন :

১। ইলেকট্রোলাইটিক ক্যাপাসিটর (Electrolytic Capacitor)

২। সিরামিক ক্যাপাসিটর (Ceramic Capacitor)

৩। পরিবর্তনশীল বায়ু ক্যাপাসিটর

 

ক্যাপাসিটরের কাজ (Functions of Capacitor)

ক্যাপাসিটরের প্রধান কাজ চার্জ ধরে রাখা।

 

ক্যাপাসিটর এর ব্যবহার (Use of Capacitor)

  • ক্যাপাসিটর প্রধানত চার্জ ধরে রাখার কাজে ব্যবহার হয়।
  • বিভিন্ন বর্তনীতে ক্যাপাসিটর ফিল্টার হিসাবে ব্যবহার করা হয়। কারণ ক্যাপাসিটর একমুখী তড়িৎ প্রবাহকে বাধা দেয় কিন্তু দিক পরিবর্তী প্রবাহকে তার মধ্য দিয়ে সঞ্চালিত হতে দেয়।
  • বিভিন্ন গ্রাহক বর্তনীতে তড়িৎচুম্বকীয় তরঙ্গ ধরার জন্য বা টিউন করার জন্য ক্যাপাসিটর ব্যবহার করা হয়।

 

ক্যাপাসিটর সম্পর্কিত আরও কিছু প্রশ্ন ও উত্তর

। ক্যাপাসিটরের অপর নাম কি?

উত্তর : ক্যাপাসিটরের অপর নাম ধারক।

২। ক্যাপাসিটর এর একক কি?

উত্তর : ক্যাপাসিটর এর একক F (Farad) বা µF (Micro Farad)।

৩। ক্যাপাসিটর এর কাজ কি?

উত্তর : ক্যাপাসিটরের কাজ হল বৈদ্যুতিক চার্জ ধরে রাখা। রিচার্জেবল ব্যাটারি যেমন চার্জ ধরে রাখে, ক্যাপাসিটর এরও একই রকম ক্ষমতা আছে, তবে খুব স্বল্প পরিসরে।

৪। ক্যাপাসিটর এর প্রতীক কি?

উত্তর : ক্যাপাসিটর এর প্রতীক C।

৫। ক্যাপাসিটর কি দিয়ে তৈরি?

উত্তর : দুইটি পরিবাহী পাতের মাঝে একটি ডাই-ইলেকট্রিক অপরিবাহী পদার্থ দিয়ে এটি তৈরি।

ক্যাপাসিটর কি ব্যাটারি হিসেবে ব্যবহার করা সম্ভব?

উত্তর : হ্যাঁ।

ক্যাপাসিটরের প্রধান অসুবিধা কি?

উত্তর : ক্যাপাসিটরের প্রধান অসুবিধা হচ্ছে আউটপুট কারেন্টের পরিমাণ অনেক কম হয়।

ক্যাপাসিটর এর দাম কত?

উত্তর : ক্যাপাসিটর এর দাম ৫০-১০০ টাকা।

ক্যাপাসিটর কি? ক্যাপাসিটর কিভাবে কাজ করে?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to top